প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষার প্রস্ততি: বাংলা পাঠ্যবইভিত্তিক সাজেশন-১

নিচের অনুচ্ছেদটি পড় এবং ১ ও ২ নং প্রশ্নের উত্তর লেখ।

“সার্থক জনম মাগো জন্মেছি এই দেশে।” কবির এ কথার অর্থ- আমাদের সৌভাগ্য ও সার্থকতা যে আমরা এদেশে জন্মেছি। আমরা বাঙালি বাংলাদেশের প্রায় সব লোক বাংলায় কথায় বলে। তবে আমাদের দেশে যেমন রয়েছে প্রকৃতির বৈচিত্র্য, তেমনি রয়েছে মানুষ ও ভাষার বৈচিত্র্য। বাংলাদেশের পার্বত্য জেলাগুলোয় রয়েছে ক্ষুদ্র জাতিসত্তার লোকজন। এদের কেউ চাকমা, কেউ মারমা, কেউ মুরং, কেউ তঞ্চঙ্গা প্রভৃতি। এছাড়াও রাজশাহী আর জামালপুরে রয়েছে সাঁওতাল ও রাজবংশীদের বসবাস। তাদের রয়েছে নিজ নিজ ভাষা। একই দেশ একই মানুষ অথচ কত বৈচিত্র্য। এটাই বাংলাদেশের গৌরব। সবাই সবার বন্ধু, আপনজন। এদেশে রয়েছে নানা ধর্মের লোক। হিন্দু, মুসলমান, বৌদ্ধ ও খ্রিস্টান। সবাই মিলে-মিশে আছে যুগ ‍যুগ ধরে। এরকম খুব কম দেশেই আছে। বাংলাদেশের এই যে মানুষ, তাদের পেশাও কত বিচিত্র। কেউ জেলে, কেউ কুমার, কেউ কৃষক, কেউ আবার কাজ করে অফিস-আদালতে। সবাই আমরা পরস্পরের বন্ধু। একজন তার কাজ দিয়ে আরেক জনকে সাহায্য করছে। গড়ে তুলছে এই দেশ।

১. প্রদত্ত শব্দগুলোর অর্থ লেখ (৭টির মধ্যে ৫টি): ১*৫=৫

সৌভাগ্য, বাঙালি, বৈচিত্র্য, সার্থক, প্রকৃতি, গৌরব, ক্ষুদ্র।

২. নিচের প্রশ্নগুলোর উত্তর লেখ। ২+৪+৪=১০

(ক) ক্ষুদ্র জাতিসত্তা কারা?

(খ) সবাই আমরা পরস্পরের বন্ধু- এ কথাটির অর্থ কী বুঝিয়ে লেখ।

(গ) বাংলাদেশের জনজীবনের বৈচিত্র্যসমূহ কী কী?

অতিরিক্ত প্রশ্ন:

(ক) বাংলাদেশের চারটি ক্ষুত্র জাতিসত্তার নাম লেখ।

(খ) এদেশের মুসলমান ছাড়াও আরও ২টি ধর্মীয় সম্প্রদায়ের নাম লেখ।

(গ) বাংলাদেশ আমাদের কাছে এত বৈচিত্র্যময় কেন?

(ঘ) বাংলাদেশের নানা ধর্মের মানুষ কীভাবে বসবাস করে?

(ঙ) প্রদত্ত অনুচ্ছেদটির মূলভাব নিজের ভাষায় লেখ।

(চ) ‘এরকম খুব কম দেশেই আছে’- ব্যাখ্যা কর।

(ছ) বাংলাদেশের গৌরব বলতে কী বুঝানো হয়েছে?

637 Views
Leave A Reply

Your email address will not be published.